মঙ্গলবার ১৯শে নভেম্বর, ২০১৯ ইং ৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে খানাখন্দে ভরা থানা রোডের সড়কের বেহাল দশা – ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন- মানুষের চরম দুর্ভোগ…??????????

আপডেটঃ ৩:০৭ পূর্বাহ্ণ | অক্টোবর ১৬, ২০১৯

এস.এম.মনির হোসেন জীবন : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৫ নং ওয়ার্ড মাছিমপুর এলাকায় টঙ্গী পূর্ব থানা সড়কের বেহাল অবস্থা। জনগুরুত্বপূর্ন এই সড়কে কার্পেটিং, ইট, বালু ও খোয়া উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তে পরিণত হয়েছে। সড়কের অর্ধেকজুড়ে সৃষ্টি হয়েছে খানাখন্দ। বেহাল এই সড়কে যানবাহন অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে। যার ফলে ব্যস্ততম এই সড়কটি দিয়ে প্রতিদিন যাত্রী ও সাধারণ মানুষের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
গতকাল সোমবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শিল্পনগরী টঙ্গী পুর্ব থানা গেট থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার সড়কটি দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় বড় বড় গর্ত ও খানাখন্দের সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টির পানিতে গর্তগুলো তলিয়ে যায়। তখন বুঝার উপায় নেই এটি সড়ক না খাল। এ সড়ক দিয়েই যাতায়াত করে ট্রাক, কাভার্ড ভ্যানসহ ভারী যানবাহনগুলো। এমন গুরুত্বপূর্ণ সড়কটিরও বর্তমানে হ-য-ব-ল (বেহাল) দশা। সড়কে এত বেশি গর্ত যে যানবাহন একটি পাশ কাটাতে গেলে আরেকটিতে গর্তের মধ্যে পড়তে হচ্ছে। মাঝে মধ্যে গাড়ি গুলো উল্টে রাস্তার পাশে পড়ে যায়। এই সড়কে অধিক ঝুঁকি নিয়েই যানবাহন যাতায়াত করছে বলে এলাকাবাসিরা অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগী, এলাকাবাসী ও যাত্রীরা জানান, এ সড়কটি গাজীপুরা, আউচপাড়া, হোসেন মার্কেট, হাজী মার্কেট, আলম মার্কেট, বনমালা ও এরশাদনগর এলাকার বাসিন্দাদের জন্য যাতায়াতের মানুষের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূণ রাস্তা। প্রদিদিন হাজার হাজার মানুষ এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করেন। মহাসড়ক থেকে অটোরিকশা উঠিয়ে দেওয়াতে সড়কটি ওইসব এলাকার জনগনের স্টেশন রোড হয়ে টঙ্গী বাজার, ঢাকা এবং শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে যোগাযোগের একমাত্র সহজ সড়ক এটি। এই সড়কে প্রতিদিন কয়েক হাজার হাজার ছোট-বড় যানবাহন চলাচল করে। সড়ক নির্মাণে নিম্নমানের কাজ করাসহ এ সড়কে ব্যাপক যানবাহন চলাচলে কার্পেটিং, ইট, বালু ও খোয়া উঠে গিয়ে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এ সড়কে প্রায় ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটে। সড়কের এ অবস্থার করণে মাঝেমধ্যে যানবাহন বিকল হয়ে পড়ে থাকায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে রোগী, সাধারন মানুষ ও যাত্রীরা চরম দুর্ভোগে পড়তে হচেছ।
অটোরিকশা চালক শরিফুর ইসলাম জানান, চেরাগ আলী থেকে একজন রোগী নিয়ে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে উদ্যোশে যান। চেরাগআলী হয়ে থানা রোডে উঠার পরই যানজটে পরেন। ৫ থেকে ১০ মিনিটের পথ প্রায় এক ঘন্টার পর হাসপাতালে পৌছান তিনি।
টঙ্গী থানা রোডের চা-দোকানদার মো: জসিম উদ্দিন বলেন, রাস্থায় পানি থাকলে বুঝা যায়না সড়কের কোথায় গর্ত আর কোথায় সমান। প্রায়ই এ সড়কে দুর্ঘটনা ঘটছে। মাঝে মধ্যে গাড়ি উল্টে রাস্তার পাশে গর্তে পড়ে যায় এবং হতাহতের ঘটনা ঘটে। রাস্তাটি জন গুরুত্বপূর্ণ বিধায় জরুরী ভিত্তিতে সড়কটি সংস্কার করা প্রয়োজন বলে তিনি মনে করেন।
সড়কের গর্তে পড়ে বিকল হয়ে যাওয়া ট্রাক ড্রাইভার রমিজউদ্দিনের সাথে কথা বলে জানা যায়, মহাসড়কে যানজট থাকায় এই সড়কে ঢুকেন তিনি। সড়কের বৃষ্টির পানি থাকায় বুঝতে পারেননি কোথায় কোথায় গর্ত। সামনে পিছনে গাড়ি থাকায় প্রায় এক ঘন্টা গাড়ি নিয়ে আটকে ছিলেন। পরে স্থানীয় লোকজনের সহযোগীতায় গাড়ি গর্ত থেকে উদ্ধার করা হয়।
এবিষয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আবুল হাসেমের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে এই সড়কের বেহাল অবস্থা রয়েছে। এই ব্যস্ততম সড়কটি নতুন করে সংস্তার করার জন্য ইতি মধ্যে টেন্ডার হয়েছে। আশা করছি খুব শিগগিরই সড়কের কাজ ধরা হবে।
তিনি আরও বলেন, কাজ শুরু করার আগে সড়কে বড় বড় গর্তগুলো ভরাট করে দেওয়া হবে। যাতে জনগন ও যানবাহন চলাচলের সুবিধা হয়। সেই কাজটিই আমি করবো।