বৃহস্পতিবার ৬ই আগস্ট, ২০২০ ইং ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে গণপিটুনীতে পুলিশের সোর্স নিহত: নারী পোশাক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার…

আপডেটঃ ৮:১০ পূর্বাহ্ণ | ডিসেম্বর ০৯, ২০১৯

শেখ রাজীব হাসান-বিশেষ প্রতিনিধিঃ গাজীপুর মহানগরের টঙ্গীর চানকির টেকে রোববার ভোর রাতে গণপিটুনীতে পুলিশের সোর্স নিহত হয়েছে। নিহতের নাম সেলিম মিয়া (৩৫)।
স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফারুক হোসেন জানান, নিহত সেলিম পুলিশের সোর্স হিসেবে এলাকায় পরিচিত ছিল। তাকে শনিবার দিবাগত রাত ৩টায় ছিনতাইকারী সন্দেহে আটক করে স্থানীয় জনতা। পরে গণপিটুনীতে ভোর রাতে তার মৃত্যু হয়। নিহত সেলিম মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ি থানার বেসনাল এলাকার মৃত: আবুল কাসেমের ছেলে বলে জানা গেছে। তিনি টঙ্গীর এরশাদ নগর পুর্নবাসন এলাকার ৪ নম্বর ব্লকে সপরিবারে বাস করতেন। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠিয়েছে।
স্থানীয়রা জানান, সেলিমের বিরুদ্ধে এরশাদনগরসহ টঙ্গীর বিভিন্ন বাসাবাড়িতে গ্রীলকেটে ও তালা ভেঙ্গে চুরির অভিযোগ রয়েছে। রোববার ভোররাত সাড়ে ৩টার দিকে সে চানকিরটেক এলাকায় গ্রীলকেটে চুরি করতে গেলে এলাকাবাসী ধাওয়া দিয়ে তাকে আটক করে এবং গণপিটুনী দেয়। একপর্যায়ে তাকে গাছের সাথে বেঁধে রাখলে ভোর ৫টার দিকে সে মারা যায়।
নিহতের স্ত্রী নাজমা আক্তার বলেন, আমার স্বামী চোর নয়। সে রাতে ৫০০টাকা নিয়ে একজন সোর্সের সাথে দেখা করার জন্য বাসা থেকে বের হয়ে যায়। তাকে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ইমান আলী, জীবন দাস ও সোহেল বাবুর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা পরিকল্পিতভাবে পিটিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করেছে। পিটুনির একপর্যায়ে সে পানি খেতে চাইলে তাকে পানিও দেয়া হয়নি। আমি আমার স্বামী হত্যার বিচার চাই।
এব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মো. কামাল হোসেন বলেন, নিহত সেলিম সোর্স পরিচয়ে আকাম-কুকাম করে বেড়াত, সে লোক সুবিধার না। এব্যাপারে মামলা প্রক্রিয়াধীন বলেও তিনি জানান।


এদিকে, টঙ্গীর আরিচপুর এলাকায় খাদিজা আক্তার (২২) নামের এক পোষাক শ্রমিকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহত খাদিজা কিশোরগঞ্জ নিকলী থানার আইল্লা পাড়ার মো. হারিস মিয়ার মেয়ে। বিয়ের পর গত চার বছর যাবত গাজীপুরের টঙ্গীর আরিচপুর সিদ্দিক মিয়ার ভাড়া বাড়িতে সে থাকতো। গত কয়েক দিন যাবত স্বামী-স্ত্রীর সাথে কথা কাটাকটি হয়ে আসছিল।
টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি মো. কামাল হোসেন বলেন, নিহতের দু‘জনের লাশ উদ্ধার করেময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণকরা হবে।