শুক্রবার ৭ই আগস্ট, ২০২০ ইং ২৩শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

নওগাঁ সীমান্তে লোকালয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে বানর !

আপডেটঃ ১:৩০ পূর্বাহ্ণ | ডিসেম্বর ১৩, ২০১৯

ইখতিয়ার উদ্দীন আজাদ- নওগাঁ-:নওগাঁ সীমান্তে একটি বানর ঘুরে বেড়াচ্ছে লোকালয়ে। বানরটি জেলার পোরশা উপজেলার প্রাণকেন্দ্র সারাইগাছী বাজারের বিভিন্ন গাছে গাছে থাকছে। উৎসুক জনতার দেওয়া খাবার খেয়ে বানরটি বেঁচে আছে। বানরটি ৪ সপ্তাহ পূর্বে প্রথমে সারাইগাছী বাজারের নাহার ফিলিং ষ্টেশনের একটি গাছে আশ্রয় নেয়। কিছুদিন পর সেখান থেকে নির্মানাধীন ফায়ার ষ্টেশনের ছাদে আশ্রয় নেয়। আবারো সেখান থেকে সারাইগাছী বাজারের একটি পাইকোড় গাছে এবং পরে নিম গাছে আশ্রয় নিয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বানরটি সারাইগাছী বাজারের ভাই ভাই হোটেলের পাশে মন্ডল মেশিনারীজের ছাদে আশ্রয় নেয়। উৎসুক জনতা বানরটিকে একনজর দেখার জন্য ভিড় জমাচ্ছে সেখানে। জনতার দেওয়া খাবার খাচ্ছে বানরটি। জনতার দেওয়া খাবার দেখতে পেয়ে গাছ বা বিল্ডিংয়ের ছাঁদ থেকে নেমে এসে খাবার খেয়ে আবারো গাছে বা ছাঁদের উপর উঠে যাচ্ছে বানরটি।

বানরটি কোথা থেকে এসেছে এখবর কেউ দিতে না পারলেও স্থানীয়রা ধারনা করছেন বানরটি হয়তো ভারতের কোন জঙ্গল থেকে পোরশা সীমান্ত দিয়ে এসেছে। বানরটির কালার কিছুটা লালটে। লেজটি মাঝারী, স্বভাব বেশ শান্ত তবে তাকে কেউ রাগালে বানরটিও রেখে যাচ্ছে এবং হিংস্র ও হয়ে উঠছে। বানরটি স্থায়ী কোন জাগায় স্থীর থাকে না। একেক সময় একেক স্থানে দেখা যায় বানরটিকে। কখনো গাছের ডালে, কখনো মানুষের বাড়ির ছাদ বা টিনের উপর বেয়ে বেড়ায়।

বানরটিকে দেখে বেশ ক্ষুধার্থ মনে হয়। কেই খাবার দিলে সাথে সাথে খেয়ে নিচ্ছে। উৎসুক জনতা তাকে আপেল, বিস্কুল, পরোটা, পুরি, মুলা খেতে দিলে সাথে সাথেই খেয়ে নিচ্ছে। তবে কারো এঁঠো খাবার তাকে দিলে সে খাচ্ছে না।

সারাইগাছী বাজারের মন্ডল মেশিনারীজের মালিক ফরহাদ হোসেন জানান, বানরটি প্রায় ৪সপ্তাহ পূর্বে এখানে এসে আশ্রয় নিয়েছে। তিনি-সহ স্থানীয়দের এবং উৎসুক জনতার দেওয়া খাবার খেয়ে বানরটি বেঁচে আছে। বানরটি এখন পর্যন্ত কোরো কোন ক্ষতি করেনি বলে তিনি জানান।