শুক্রবার ২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং ৯ই ফাল্গুন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

আমি মেয়র হিসেবে নয়- নিজেকে একজন সেবক হিসেবে কাজ করে যাবো —–মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম

আপডেটঃ ২:২৯ পূর্বাহ্ণ | জানুয়ারি ১৮, ২০২০

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : স্তব্ধ ঢাকাকে সচল ঢাকা দেখতে হলে নৌকার বিজয়ের কোন বিকল্প নেই উল্লেখ করে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে (ডিএসসিসি) আসন্ন মেয়র নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদ প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেছেন, আপনারা ভোট দিয়ে যদি আমাকে মেয়র নির্বাচিত করেন, তাহলে আমি আপনাদেরকে কথা দিতে চাই, আগামী ৬ মাসের মধ্যে এলইডি বাতির মাধ্যেমে ঢাকা নগরীকে একটি আলোকিত ঢাকা নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো।
আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি মেয়র হিসেবে নয়, আমি ঢাকা নগরবাসির সকল নাগরিকের একজন সেবক হিসেবে আগামী দিনে কাজ করে যাবো। আমি গত ৯ মাসে যে কাজ করেছি তার চেয়ে বেশি কাজ করে আপনাদের সচল, সবুজায়ন, মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত ঢাকা উপহার দেব,ইনশাআল্লাহ।
আজ বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর মিরপুরের রূপনগর-আলুব্দী ঈদগাঁহ মাঠে সপ্তম দিনের মতো নির্বাচনী গণসংযোগ ও প্রচারনাকালে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।
বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র র্থী আতিকুল ইসলাম বলেছেন, আপনারা মিথ্যা অভিযোগ করবেন না। আমাদের কোনো নেতাকর্মী, সমর্থক আপনাদের পোস্টার ছিঁড়ে নাই, ছিঁড়বে না।
আতিকুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনের দিন যত ঘনিয়ে আসছে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা ততই বেশি উৎসবমূখর হয়ে উঠছে। আমি আপনাদের ভোটে মেয়র নির্বাচিত হলে ২৪ ঘন্টা নাগরিক সেবা দিবো, ইনশাআল্লাহ।
তিনি আরও বলেন, নির্বাচনের আগে আর আমার বিরুদ্বে বানিয়ে বানিয়ে শুধু শুধু মিথ্যা অভিযোগ করবেন না। প্রয়োজন হলে আপনার পোস্টার দেন, আমি তা লাগিয়ে দেব। এসব অভিযোগ না করে শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকেন, ৩০ জানুয়ারি দেখা যাবে, নৌকা বিজয়ী হবেই- ইনশাআল্লাহ্।
মিরপুর ও রূপনগর এলাকার ভোটার ও সাধারণ জনগনের উদ্দেশে আতিকুল ইসলাম বলেন, ঢাকা সিটি থেকে জলাবদ্ধতা প্রথমত নিরসন করতে হবে। গত নয় মাসে আমরা চিহ্নিত করেছি। আপনারা যদি নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন, তাহলে আগামী পাঁচ বছরে সমস্যার সমাধান করব্।
তিনি আরও বলেন, আগামী ৩০ জানুয়ারি আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হলে আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করব পরিকল্পিত নগরী গড়তে। ১৮টি নতুন ওয়ার্ড সাজাতে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। সেই অনুযায়ী পরিকল্পিত ওয়ার্ড হিসেবে সেগুলো দৃশ্যমান হবে।
ডিএসসিসি একটি সেবাদানকারী সংস্থা উল্লেখ করে আতিকুল ইসলাম বলেন, আমি ২৪ ঘণ্টা ঢাকা নগরবাসীর সেবা প্রদানে নিজেকে নিয়োজিত রাখবো। হেল্পলাইনে সমাধান না হলে আমাকে ( মেয়র) কে সরাসরি সংযোগ করতে পারবেন।
আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর মিরপুরের আলুব্দী ঈদগাহ ময়দানের পাশ থেকে তার সপ্তম দিনের গণসংযোগ শুরু করেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম।
মেয়র নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদ প্রার্থী আতিকুল ইসলাম গণসংযোগে নেতাকর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতিতে ‘উন্নয়নের মার্কা নৌকা, নৌকা’ স্লোগানে মুখরিত হতে থাকে পুরো মিরপুরের রূপনগ ও আলুব্দী এলাকা। আশেপাশের বিভিন্ন এলাকা থেকে নেতা কর্মীরা ছোট ছোট মিছিল নিয়ে মিরপুর ১২ নম্বরের আলুব্দী ঈদগাহ ময়দানের পাশে জড়ো হতে থাকেন।
এসময় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩ নম্বর ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ সমর্থিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী জিন্নাত আলী মাদবরের ঠেলাগাড়ি মার্কা এবং ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী সালাউদ্দীন রবিনের টিফিন ক্যারিয়ার মার্কার পক্ষে স্লোগান দিতে দেখা যায়।
এসময় গনসংযোগ ও প্রচারণাকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি, সাবেক সংরক্ষিত সংসদ সদস্য সাবিনা আক্তার তুহিন, নাজমা আক্তার, আমির হোসেন মোল্ল্যাহ, ডিএনসিসি ৩ নম্বর ওয়ার্ড দলীয় কাউন্সিলর প্রার্থী জিন্নত আলী মাদবর, ৬ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী সালা উদ্দিন সহ ঢাকা মহানগর, বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের আওয়ামীলীগ ,যুবলীগ, ছাত্রলীগ, জাতীয় শ্রকিলীগ, স্বেচছাসেবকলীগ এবং তার সহযোগী অংগ সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা সাথে ছিলেন।
এদিকে, মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলামের একান্ত সচিব সাইফুদ্দিন ইমন আজ বলেন, বৃহস্পতিবার মিরপুর ১২ এর আলুব্দী ঈদগাহ ময়দানের পাশ থেকে সেকশন ১১, পলাশ নগর, সেকশন ১২, পল্লবী, মিল্কভিটা এলাকায় গণসংযোগ করছেন আতিকুল ইসলাম। আজ ৭ম দিনের মত গণসংযোগ চলছে তার।
উল্লেখ্য যে, আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন মেয়র ও কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। দুই সিটির প্রতিটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ হবে ইভিএমের মাধ্যমে। সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত একচানা ভোটগ্রহণ চলবে।