শনিবার ৩০শে মে, ২০২০ ইং ১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে বেতনভাতা পরিশোধের দাবিতে গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ সমাবেশ…

আপডেটঃ ৮:৫৫ অপরাহ্ণ | এপ্রিল ০৫, ২০২০

টঙ্গী (গাজীপুর) প্রতিনিধি : করোনার এই সময়ে টঙ্গীর গার্মেন্টস কারখানা গুলো খোলার খবর শুনে গ্রামের বাড়ি থেকে ছুটে আসা হাজার হাজার শ্রমিক রবিবার কারখানা গেটে এসে দেখতে পান আগামী ১১ এপ্রিল পর্যন্ত গার্মেন্টস গুলোতে ছুটি দিয়ে বন্ধের নোটিশ।

এ সময় কারখানা বন্ধ ও ছুটির নোটিশ দেখতে পেয়ে গার্মেন্টস কর্মীরা মার্চ মাসের বেতনভাতাদি পরিশোধ ও শ্রমিক ছাঁটাই ও শ্রমিকদের লাঞ্ছিত করার খবর শুনে বিক্ষোভ সমাবেশ করতে থাকে। তারা চাকরি ও বেতনভাতার নিশ্চয়তার দাবিতে কারখানা কর্তৃপক্ষের তাৎক্ষণিক লিখিত বক্তব্যেরও দাবি জানায়। তাদের চাকরিচ্যুত করা হবে না মর্মে এমন নিশ্চিয়তা চাইতে থাকে তারা।
রবিবার এমনই একটি গার্মেন্টস শ্রমিকদের বিক্ষোভ মিছিল টঙ্গীর এরশাদনগর শালিকচুঁড়া এলাকার ওরিয়েন্ট এলিউর নিট ওয়ার কারখানা গেটের সামনে বিক্ষোভ করতে দেখা গেছে।
শ্রমিক বিক্ষোভ প্রসঙ্গে কারখানা কর্তৃপক্ষ জানান, গার্মেন্টস কর্মীদের ভুল বোঝা বুঝির কারনে তারা বিক্ষোভ মিছিল করেছে। ভুল বোঝা বুঝিও মিটমাট হয়ে গেছে। এর আগে গার্মেন্টস মালিকরা রবিবার থেকে গার্মেন্টস খোলা রাখার সিদ্ধান্ত দিয়ে দেশের কারখানা গুলোর গেটে গেটে নোটিশ জারি করলে শনিবার সকাল থেকে গ্রামের বাড়ি থেকে হাজার হাজার গার্মেন্টস কর্মীর ¯্রােত আসতে থাকে ঢাকা-টঙ্গী-গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ মূখী। করোনা সময়ে গার্মেন্টস খোলার ঘোষণায় দেশে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। টনক নড়ে সংশ্লিষ্ট গার্মেন্টস শীর্ষ নেতৃত্বের কর্ত্পৃক্ষের। শনিবার রাত ১১ টার দিকে বিজিএমইএ সভানেত্রী রুবানা হক বিভিন্ন মিডিয়ায় সাক্ষাৎকার দিয়ে করোনা সময়ে গার্মেন্টস মালিকদের ১১ এপ্রিল পর্যন্ত গার্মেন্টস গুলো বন্ধ রাখার আহবান জানান। মালিরা তা মেনে কারখানা গুলোতে বন্ধের নোটিশ জারি করে।
কারাখানা কর্তৃপক্ষ জানান, করোনা ভাইরাস চলাকালীন সময়ে কোন গার্মেন্টস শ্রমিক চাকরিচ্যুত হবে না এবং বন্ধকালীন সময়ে বেতনভাতাদি নিয়মিত পাবেন। গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের টঙ্গী থানা শাখার সভানেত্রী ডলি আক্তার ১৫ তারিখের মধ্যে সকল গার্মেন্টসে বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবি জানিয়েছেন।