বুধবার ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ ইং ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বদরগঞ্জে জবাইয়ের প্রস্তুতিকালে কসাইয়ের বাড়ি থেকে মরণাপন্ন তিনটি গরু উদ্ধার : অভিযুক্তদের আটক না করে ছেড়ে দেয়ায় সাধারণ মানুষের ক্ষোভ…

আপডেটঃ ১২:৩৩ পূর্বাহ্ণ | মে ০৫, ২০২০

বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধিঃময়দুল ইসলাম-:রংপুরের বদরগঞ্জে জবাই করে মাংস বিক্রির প্রস্তুতির সময় হবিবর রহমান হবি ওরফে হবি কসাই নামে এক কসাইয়ের বাড়ি থেকে মরণাপন্ন তিনটি অসুস্থ গরু উদ্ধার করা হয়েছে।
আজ সোমবার সন্ধ্যার দিকে পৌরশহরের বালুয়াভাটা ইক্ষুসেন্টার এলাকা থেকে গরুগুলো উদ্ধার করে পুলিশ। তবে হাতে পেয়েও হবিবর রহমান ও তার ছেলে হাসিনুর রহমানকে পুলিশ অজ্ঞাত কারণে আটক না করে ছেড়ে দেয়ায় সাধারণ মানুষের মধ্যে তিব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। হবিবর রহমান এতদিন লোকচক্ষুর আড়ালে মরা, অসুস্থ্য ও গর্ভবতী গরু জবাই করে মাংস বিক্রি করার ঘটনা ফাঁস হয়ে পড়লে অস্বস্থিতে পড়েন শত শত ভোক্তা সাধারণ।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পারেন প্রতিদিন একটি করে অসুস্থ্য গরু কিনে জবাই করে মাংস বিক্রি করেন হবি কসাই। গত রোববার মধ্যরাতে উপজেলার একটি খামার থেকে পা পচে যাওয়া তিনটি অসুস্থ গাভী কিনে নেন হবি কসাই। সোমবার সকালে একটি গরু জবাই করে মাংস বিক্রি করেন তিনি। এরমধ্যে আরো তিনটি গরু পর্যায়ক্রয়ে জবাই করে পৌরবাজারে মাংস বিক্রি প্রস্তুতি নেয় সে। এ খবর জানতে পেয়ে আজ (৪ এপ্রিল) সন্ধ্যায় পুলিশ তার বাড়িতে অভিযান চালায়। এসময় হবি কসাইয়ের বাড়ি থেকে তিন মরণাপন্ন গাভী উদ্ধার করা হয়। এতে দেখা যায় একেকটি গরুর পা পঁচে রক্ত ঝরছে। কোনটার অবস্থা একেবারে কাহিল। স্থানীয়রা জানান, যেখানে গরু অসুস্থ্য হয়ে মারা যায়। ওই গরু অল্প টাকা কিনে সে মাংস বিক্রি করে। তার বিরুদ্ধে মরা, গর্ভবতী ও অসুস্থ গরু জবাই করে মাংস বিক্রি বিস্তর অভিযোগ করেন এলাকার সাধারণ মানুষ। কিন্তু পুলিশ অজ্ঞাত কারণে হবি কসাই ও তার ছেলে হাসিনুর রহমানকে আটক না করে ছেড়ে দেয়ায় স্থানীয় মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
বদরগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জুয়েল বলেন, আপাতত তিনটি গরু অসুস্থ্য গরু উদ্ধার করা হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে কসাইয়ের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।
বদরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) আরিফ আলী বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে গরু উদ্ধার করা হলেও ওই কসাইয়ের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।