শুক্রবার ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং ১৯শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

টঙ্গীতে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ…

আপডেটঃ ৩:১২ অপরাহ্ণ | জুন ১৮, ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক -: চ্যানেল সেভেন -: গাজীপুরের টঙ্গী চেরাগআলী আলম মার্কেট এলাকায় তানজিলা ইসলাম (টুম্পা) (১৭) নামে এক গৃহবধূকে তাঁর স্বামী ও পরিবার হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মঙ্গলবার (১৬ জুন) সকাল ১০ টায় টঙ্গীর চেয়াগ আলী আলম মার্কেট এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী সাকিব মৃধা ও তার পরিবারেরে লোকজন পলাতক রয়েছে।
নিহত টুম্পার মা মমতাজ বেগম( শিল্পী) জানান, বিয়ের পর থেকেই বিভিন্ন সময় মেয়ে বাপের বাড়ি থেকে টাকা নেয়ার জন্য টুম্পাকে মারধর নির্যাতন করতো। কয়েক বার বাপের বাড়ি চলে আসে। পরে টাকা দিয়ে টুম্পাকে আবার শ্বশুর বাড়ি পাঠানো হয়। এছাড়া টুম্পাকে মোটরসাইকেল, মোবাইল, ফার্নিচার আনার জন্য নির্যাতন চালায় পরে তাও দেওয়া হয়।
গত তিনদিন আগে বাপের বাড়ি থেকে বুঝিয়ে স্বামীর বাড়ীতে পাঠানো হয় টুম্পাকে। স্বামী ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের মানসিক নির্যাতনে অশান্তির কারণে টুম্পা শ্বশুর বাড়িতে যেতে চাচ্ছিল না। মেয়ের মা ঘটনার বিবরনে বলেন, আমাকে সকাল ১০ টার দিকে মেয়ের শাশুড়ী ফোন দিলে টুম্পা কেমন জানি করতেছে আপনি দ্রুত আসেন, আমি জিজ্ঞেস করলাম সাকিব (মেয়ের স্বামী) কোথায় ? তখন তিনি বলেন অফিসে আছে।
আপনি দেখেন আমি আসতেছি। এই বলে আমার ছেলে কে নিয়ে তাদের বাড়ীতে যায় গিয়ে দেখি টুম্পা ফ্যানের সাথে ঝুলে আছে সাকিব (মেয়ের স্বামী) বাড়ীতেই আছে। তখন দ্রুত টুম্পাকে নামিয়ে মাথায় পানি দেই, পরে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাই।তখন হাসপাতালে ডাক্তার বলেন টুম্পা মারা গেছেন।
নিহত টুম্পার মা মমতাজ বেগম( শিল্পী) অভিযোগ করে বলেন টুম্পাকে তার স্বামী (সাকিব মৃধা) ও তার পরিবার ফ্যানের সাথে ফাঁস দিয়ে হত্যা করেছে।
সুত্র জানায়,টঙ্গীর চেরাগ আলী আলম মার্কেট এলাকার সাইদ মৃধার ছেলে সাকিব মৃধার সাথে দেড় বছর আগে তানজিলা আক্তার টুম্পার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুকের জন্য তানজিলা আক্তার টুম্পাকে শারিরীক ও মানষিক নির্যাতন করতো।