মঙ্গলবার ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে তুরাগ থানা রাজনৈতিক মহলের শোক…

আপডেটঃ ৪:২১ অপরাহ্ণ | জুলাই ১০, ২০২০

মোঃ ইলিয়াছ মোল্লাঃ আওয়ামীলীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য এ্যাডঃ সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে পৃথক পৃথক শোকবার্তায় মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানার বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন ।
তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের শোক: তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি বীর- মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ নাসির উদ্দিন ও বীর- মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আব্দুল বারিক মেম্বর । তুরাগ থানা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় ।
তুরাগ থানা ছাত্রলীগের শোক: ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সাবেক স্বরাষ্ট্র এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, তুরাগ থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আরিফ হাসান । তুরাগ থানা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় ।
তুরাগ থানা যুবলীগের শোক: ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা আওয়ামী- যুবলীগের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং সাবেক ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, তুরাগ থানা আওয়ামী- যুবলীগের আহ্বায়ক নিত্য চন্দ্র ঘোষ ও যুগ্ন আহ্বায়ক মোঃ নাসির উদ্দিন নাসিম । তারা বলেন, সাহারা খাতুন ছিলেন কল্যাণমূলক রাজনীতির অগ্রদূত, একজন পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ ও নীতি আদর্শের প্রতীক । দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে তিনি ছিলেন সর্বজন স্বীকৃত এক জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব । তিনি আজীবন সততা ও ন্যায়-নিষ্ঠার সঙ্গে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠায় কাজ করে গেছেন । এ সময় তুরাগ থানা যুবলীগের পক্ষ থেকে মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয় ।
তুরাগ থানা স্বেচ্ছাসেবকলীগের শোকঃ ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা আওয়ামী- স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন এমপির মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন, তুরাগ থানা আওয়ামী- স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আলহাজ মোঃ সাদেকুর রহমান সাদেক ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহীন হোসেন । এক শোকবার্তায় তারা মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন । শোকবার্তায় আরও বলেন, অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন বঙ্গবন্ধুর চেতনাকে বুকে ধারণ করে সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে আজীবন দেশ ও মানুষের সেবা করে গেছেন । বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দু:সময়ে তিনি দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। দলীয় নেতাকর্মীসহ গণমানুষের জন্য তার অবদান চির অক্ষয় হয়ে থাকবে । দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুনের জীবন ও কর্ম সবার জন্য এক অনুসরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে । তার মৃত্যুতে দেশ ও জাতির অপূরণীয় ক্ষতি হয়ে গেল ।
তুরাগ থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের শোকঃ ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন, তুরাগ থানা জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি আলহাজ্ব তৌকির হাসান ইকবাল ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোলেমান ওসমান । শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে তারা বলেন, এ্যাডঃ সাহারা খাতুন ছিলেন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড। দলের প্রতি বিশ্বস্ততার দৃষ্টান্ত গডে দেশের প্রথম নারী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে চিরদিন ইতিহাসের পাতায় লেখা রবে তার নাম। বিদায় প্রিয় সাহারা আপা । শোক ও শ্রদ্ধা।’
তুরাগ থানা কৃষকলীগের শোকঃ ঢাকা মহানগর উত্তরের তুরাগ থানা কৃষকলীগের পক্ষ থেকে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও বর্তমান সংসদ সদস্য সাহারা খাতুনের মৃত্যুতে গভীর শোক ও বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন, তুরাগ থানা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ সাজেদুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক এস এম রিপন । তুরাগ থানা কৃষকলীগের পক্ষ থেকে এক শোকবার্তায় মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় ।
এ্যাডঃ সাহারা খাতুন কিডনি ও শ্বাসতন্ত্রের জটিলতায় ভুগছিলেন। গত সোমবার এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার (৯ জুলাই) স্থানীয় সময় রাত ১২টা ২৬ মিনিটে ইন্তেকাল করেন । জ্বর, অ্যালার্জিসহ বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন রোগে অসুস্থ অবস্থায় গত ২ জুন সাহারা খাতুন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হন। এখানে তার অবস্থার অবনতি হলে গত ১৯ জুন সকালে তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয় । এরপর অবস্থার উন্নতি হলে তাকে গত ২২ জুন দুপুরে আইসিইউ থেকে এইচডিইউতে (হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট) স্থানান্তর করা হয়। পরে ২৬ জুন সকালে শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আবারও তাকে আইসিইউতে নেওয়া হয় । সাহারা খাতুন ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। এরপর তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করেন। তিনি ঢাকা-১৮ সংসদীয় আসনে পরপর তিনবার নির্বাচিত হন । সাহারা খাতুন ১৯৪৩ সালের ১ মার্চ ঢাকার কুর্মিটোলায় জন্মগ্রহণ করেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি অবিবাহিত ছিলেন ।