মঙ্গলবার ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বদরগঞ্জে আদিবাসী শিক্ষার্থী রুখিয়া হত্যাকান্ড – তাঁর মা বাবা পাচ্ছেন নতুন বাড়ি….

আপডেটঃ ৮:৩৪ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ১৫, ২০২০

ময়দুল ইসলাম, বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি :রংপুরের বদরগঞ্জে ক্ষুদ্র নৃ-জাতি গোষ্ঠি শিক্ষার্থী রুখিয়া রাউতকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যার ঘটনার পর তার হতদরিদ্র পরিবারের জন্য বাড়ি নির্মাণ করে দেওয়া হচ্ছে। গতকাল মঙ্গলবার উপজেলার রামনাথপুর ইউনিয়নের খোর্দবাগবাড় মিশনপাড়ায় রুখিয়ার মা বাবার জন্য ওই বাড়ি নির্মাণ কাজের ভিত্তি স্থাপন করেন রংপুর জেলা প্রশাসক আসিব আহসান। এসময় উপজেলা প্রশাসনসহ আদিবাসী নেতৃৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য ঘাতকের হাতে নির্মমভাবে নিহত হতদরিদ্র পরিবারের মেধাবি শিক্ষার্থী রুখিয়া রাউৎকে নিয়ে স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে সংবাদ প্রকাশ করা হয়। পরে উপজেলা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ হলে রুখিয়ার পরিবারের জন্য বিশেষভাবে বাড়ি নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। রুখিয়া দিনেশ ও সুমতি রাউৎ দম্পত্তির মেয়ে। তিনি ছিলেন রংপুর কারমাইকেল কলেজের ইতিহাস বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী।

উল্লেখ্য গত ৬ অক্টোবর ভোরে বদরগঞ্জের পাশে দিনাজপুরের ফুলবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের ধারে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় নির্মমভাবে হত্যার শিকার রুখিয়ার লাশ উদ্ধার করা হয়। গত ৫ অক্টোবর একই এলাকার আব্দুল গফুরের ছেলে আনিছুর রহমান (৩০), অটোচালক রাজ মিয়া ও পার্শ্ববর্তী পার্বতীপুর উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের দুর্গাপুর এলাকার আশিকুজ্জামান বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধে হত্যা করে রুখিয়া রাউৎকে। পরে পুলিশ নিজ নিজ বাড়ি থেকে ঘাতকদের গ্রেপ্তার করে।
উপজেলা প্রশাসন থেকে জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী আশ্রয়ন প্রকল্পের বিশেষ বরাদ্দ থেকে মিশনপাড়ায় রুখিয়ার বাড়িতে ইটের তৈরি দুইটি কক্ষ, বারান্দা, রান্নাঘরসহ অবকাঠামো নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বি সুইট, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল মামুন, খ্রীস্টান সম্প্রদায়ের নেতা ফাদার কেবুবিম বাকলা, ফাদার বিদ্যা বর্মণ ও আদিবাসী নেতা শ্যামল টুডু প্রমুখ। এর আগে জেলা প্রশাসক ক্ষুদ্র-নৃ গোষ্ঠির শীতার্ত পরিবারকে একটি করে কম্বল, শিশু খাদ্য ও শুকনো খাবার উপহার হিসেবে তুলে দেন। পরে তারা রুখিয়ার সমাধিস্থান পরিদর্শন করে নিহতের পরিবারকে সমবেদনা জানান। বদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মেহেদী হাসান প্রধানমন্ত্রীর গৃহনির্মাণ প্রকল্পের বিশেষ বরাদ্দ থেকে রুখিয়ার হতদরিদ্র পরিবারকে ওই গৃহনির্মাণ করে দেওয়ার উদ্যোগ নেন। এক আলোচনাসভায় জেলা প্রশাসক আসিব আহসান বলেন, ‘সরকার ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠি পরিবারের জন্য নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। তাদের ইতিহাস-ঐতিহ্য লালন করার জন্য নানমুখী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। আগামীতে মিশনপাড়ায় মেধাবি শিক্ষার্থীদের জন্য একটি ট্রেনিং সেন্টার স্থাপন করে কারিগরী শিক্ষার পাশাপাশি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হবে। এমনকি তাদের যে কোন মানবিক সহায়তার জন্য প্রশাসন সব সময় পাশে থাকবে বলে জানান তিনি।’ এসময় রুখিয়ার বাবা দিনেস ও মা সুমতি রানী সবার প্রতি বিশেষ কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।’