মঙ্গলবার ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা লীগের নায়ক “বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল হোসেন মানিক”

আপডেটঃ ৯:০৫ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ২৩, ২০২০

জামিলা আক্তার পারুল-: গতকাল ২২/১২/২০২০ইং বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা লীগের ঢাকা মহানগর দঃ এক আলোচনা ও পরিচিতি সভায় এবং মহান বিজয় দিবসের আনন্দ উজ্জাপন সভার আয়জন করেন, মহানগরের সভাপতি বীর মুক্তি যোদ্ধা সাইদ হোসেন স্বরন ও সাধারন সম্পাদক হোসেন আক্তার, প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা লীগের নায়ক প্রতিষ্টা সভাপতি আবুল হোসেন মাণিক– রাজশাহীর কৃতি সন্তান,, ও কেন্দ্রের সাধারন সম্পাদক মাসুদ পারভেজ সোহেল এবং কেন্দ্রর নেতৃবৃন্দ, আবুল হোসেন মানিক বক্তব্য দেবার সময় বলেন শেখ মুজিব যখন আমার বাড়ীতে আসেন দুপুর বেলায় এক লোক পানির জন্য ছট্ফট্ করছিল _ শেখ মুজিব দৌড়ে আমাদের ডাবগাছে উঠে ডাব পেরে নিজেই দাঁত দিয়ে ডাব ছিলে পানি খাইয়ে দিয়েন লোকটাকে তৃষ্না মেটালেন ঐ লোক তখনি বলতে লাগলেন কে তুমি বাবা দোয়া করি তুমি রাজা হও এভাবেই তুমি সারা দেশের মানুষের সেবা কর, তুমি অনেক বড় হবে বাবা আমি দোয়া কড়লাম, বলতেই আবুল হোসেন মানিক হাওমাও করে কাদতে লাগলেন। ঐ লোকটার দোয়াই মনে হয় কাজে লেগেছে আমার মনে হছে ঐ লোকটি আদ্ধাতিক কোন লোক ছিলেন, আর আমি মানি আজও বঙ্গ বন্ধু সেখ মুজিব কে ফলো কড়ি , তিনি আরও বলেন ৭ ই মাচ’ এক ডাকে দেশের স্বাধীনের নেশায় ও মানুষের এতো অপমান আর সইতে না পেরে যুদ্ধে যাই, আর একজনকে দেখেছি শ্রী মতি ইন্দ্রা গান্ধী কে { শেখ মুজিব তো তখন জেলে, }ভারতে/ইন্ডয়ায় ইন্দ্রা গান্ধী আমাদের শুধু ট্রেনিং করাননি বিভিন্ন অস্র ও লোকবল দলিয়েছেন এবং আমাদেরকে ঘুরে ঘুরে দেখে খোজ নিয়েছেন, তিনি সবাইকে আটানা পয়সা দিতেন প্রতিদিন সিগারেট খাবার জন্য আমি জমিয়ে রাখতাম, বড় বড় নেতাদের থেকে সাহায্য এনে আমাদে খাওয়াতেন। মানিক আর বলেন শেখ মুজিব বলেছেন রক্ত দিয়েছি আরও দেব তাই স্বপরিবারে রক্ত দিলেন, মানিক আর বলেন ঐ খালেদাজিয়া বলেন ইন্ডিয়ার কাছে দেশ বিক্রি করে দেবে ……আজ জনগন সবই দেখছেন,, „এতো উন্নয়নকাজ শেখ মুজিব এর মেয়ে নৌকার হাল ধরে পালতুলেছেন উন্নয়নের যোয়ার বইয়ে দিয়েছেন সাড়া বাংলাদেশে, বাবার মত যাহা বলে তাহাই করেন_ যা কোন মন্ত্রিও চিন্তাও করেন নি দুর্গম হাওর এলাকায় নৌকা এ্যাম্বুলেন্স, বঙ্গ বন্ধু স্যাটালাইট, ফ্লাই ওভার, পদ্মা সেতু,ড্রেনেজ, বিভিন্ন স্থানে মসজিদ, কাওয়ামি মাদ্রাসা, যুদ্ধ অপরাধী দের বিচার,বাংলা ভাষাকে সারাটা বিশ্বাশে শিক্রিতি দেয়া, টিভি চ্যানাল গুলোকে উম্মুক্ত করে দেয়া,বাংলাদেশে সোশাল মিডিয়া ফেইজ বুক আনা, এত এত টিভি ও অনলাইন এবং পত্রীকার অনুমোদন, রাস্তা, স্কুল/ কলেজ,হাসপাতাল,সার বিতরন, কৃষি খাতে বিভিন্ন যন্তর পাতি, ধষ’ন এর বিচার,মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘষনা,বিভিন্ন কম’ সংস্থা তৈরী,( এনজিও), অতিতে কোন মন্ত্রি আছে নিজ সন্তানের বিচার করেছে ( ক্যাসিনো), পাপিয়ার বিচার করে, হাসপাতালের বিচার করে _ এই হচ্ছে শেখ মুজিব এর বংশ ধর, তারঁ বাকি কাজ শেষ করার জন্যই বিধাতাই শেখ হাসিনাকে সরিয়ে রেখেছিলেন,মানিক আমাদের ষ্টাপ রিপটারের সাথে উদ্দেশ্য করে বলেন আল্লাহ্ আমাকে মন্ত্রি বানালে ( আমার কেন্দ্রের দপ্তর সম্পাদক এর কথা মত মুক্তি যোদ্ধাদের জন্য একটি আসন আলাদা করে দেব ইনশাল্লাহ,,) হতে পারে লুঙ্গী পরা, কাদা মাখা, পঙ্গু।। যে অফিসেই হওক ডিসি, মন্ত্রী, এম পি, থানা,সব খানেই।।