মঙ্গলবার ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

মদনে মালিকানা জমি দিয়ে জোর পূর্বক রাস্তা নির্মাণ…

আপডেটঃ ৫:০৫ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ০৭, ২০২১

হাবিবুর রহমান, মদন, নেত্রকোণা- নেত্রকোণা জেলা মদন উপজেলা ফতেপুর ইউনিয়নে পশ্চিম ফতেপুর পিতা- মৃত শহত আলীর ছেলে আবুল হাসেম এক লিখিত অভিযোগ করে যে, তার পৈত্তিক ভূমি দিয়ে জোরপূর্বকভাবে একই গ্রামের পিতা- মৃত আব্দুল ছাত্তার ভূইয়ার ছেলে ও বর্তমান ফতেপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ বাবুল (মেম্বার) রাতের অন্ধকারে কিছু সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে প্রায় ৮শ ফুট রাস্তা মালিকানাধীন জমি দিয়ে নির্মাণ করে। সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, মৌজা ফতেপুর জিএল নং- ৪৬, খতিয়ান নং- ২৫১, দাগ নং- ৪৪৮৪, শ্রেণি- নাম, পরিমাণ-৫৬ শতাংশ, এখানে সরকারি কোন অনুমোদন ও খাস জমি নেই।

অভিযোগে জানা যায়, মোঃ বাবুল মেম্বার একজন ভূমি দস্যু সন্ত্রাসী লোক ও তার ব্যক্তিগত স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য অবৈধভাবে প্রতারিত হইয়া জোর পূর্বক ধানকুনিয়া প্রধান সড়ক হইতে হাওড় পর্যন্ত রাতারাতি মালিকানা জমি দিয়ে রাস্তা নির্মাণ করে। জমির মালিক বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করে।

ইউপি সদস্য বাবুল মিয়ার সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, রাস্তাটি মালিকানা জমি দিয়ে হয়েছে। এখানে সরকারি কোন জমি নাই। কিন্তু রাস্তায় মাটি কাটার পূর্বে ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলামসহ জমির মালিকদের নিয়ে কথা বলে রাস্তায় মাটি কেটেছি। এখন জমির মালিকরা বিভিন্ন জায়গায় আমার নামে অভিযোগ দিচ্ছে।

ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম এর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানায়, এই এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে কথা বলেছি। এখন পর্যন্ত কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারিনি। এজন্য আমি সরকারি বরাদ্দ দিতে পারছিনা। রাস্তার জমি মালিকানা থাকায় আমি নিজে গিয়ে নকশা দিয়ে মাপ ঝুক করেছি। এতে দেখা যারা অভিযোগ করেছে রাস্তাটি সম্পূর্ণ মালিকানা পৈত্তিক ভূমি। এবং পশ্চিম ফতেপুর এর লোকজন আমার বাড়িতে এসে বলেছে মাটি যেখানে আছে যেখানে থাকবে।

মদন থানার তদন্ত কর্মকর্তা (এসআই) মোঃ মোশাররফ হোসেন এ প্রতিনিধিকে জানান, গত ২৭শে ডিসেম্বর ২০ সালে নেত্রকোণা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নিকট পশ্চিম ফতেপুর গ্রামের আবুল হাসেম একটি লিখিত অভিযোগ করে। সেটি তদন্ত করেছি। তদন্ত চলমান।