মঙ্গলবার ১৫ই জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

আলহাজ্ব গিয়াস উদ্দিন সরকার কাউন্সিলর এর মাধ্যমে টঙ্গীতে একাধিক মামলার আসামির আত্মসমর্পণ….

আপডেটঃ ১০:২৫ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২১, ২০২১

শামীমা খানম-: টঙ্গীতে খুন ও মাদক মামলার আসামির আত্মসমর্পন । টঙ্গীর শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী স্বপন আজ বৃহস্পতিবার টঙ্গী পশ্চিম থানায় আত্মসমর্পণ করেছে। সে ২টি খুন ও ২১টি মাদকসহ ২৩ মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামী বলে জানিয়েছেন টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ শাহ আলম। আজ দুপুরে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে টঙ্গী পশ্চিম থানায় আয়োজিত এক ব্রিফিংয়ে তিনি একথা জানান। এসময় টঙ্গী পশ্চিম জোনের দায়িত্বপ্রাপ্ত সিনিয়র সহকারী কমিশনার আশরাফুল ইসলাম পিপিএম উপস্থিত ছিলেন।মাদকের অন্ধকার জগৎ থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ ২৩ মামলায় ওয়ারেন্টভুক্ত পলাতক আসামি মাহবুবুর রহমান স্বপনকে (৩৫) গত এক সপ্তাহ টেলিফোনে ও তার পরিবারের মাধ্যমে কাউন্সিলিং করে আত্মসমর্পণে উদ্বুদ্ধ করেন।

এই ব্যাপারে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ৫৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর গিয়াস উদ্দিন সরকারও পুলিশকে সার্বিক সহযোগিতা করেন বলে তিনি জানান। পুলিশের কাউন্সিলিং এ উদ্বুদ্ধ হয়ে আত্মসমর্পণে রাজি হলে আজ সকাল ১১টায় টঙ্গী বাজার হাজীর মাজার বস্তিতে ওসি শাহ আলমের নেতৃত্বে একদল পুলিশের উপস্থিতিতে স্বপন স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পণ করেন। আত্মসমর্পণের পর আসামী স্বপনকে টঙ্গী পশ্চিম থানায় এনে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে ফুল দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে স্বাগত জানানো হয়। স্বপন জামালপুর জেলার ইসলামপুর থানাধীন ফুলকারচর গ্রামের মৃত আব্বাস আলীর ছেলে বলে জানায়। সে সাংবাদিকদের জানায়, “আমার ১৩ বছরের একটি ছেলে আছে। সে লেখাপড়া করছে। আমি চাই না আমার ছেলেকে মানুষ মাদক ব্যবসায়ীর ছেলে বলুক। সেজন্য আমি অন্ধকার থেকে আলোর জগতে ফিরতে চাই।”