মঙ্গলবার ১১ই মে, ২০২১ ইং ২৮শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

রাজধানীতে তক্ষকসহ পাচারকারী চক্রের ৭ সদস্য গ্রেফতার ..

আপডেটঃ ১১:১২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২৩, ২০২১

এস,এম,মনির হোসেন জীবন : রাজধানীর দারুস সালাম থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে  একটি তক্ষকসহ সংঘবদ্ধ পাচারকারী চক্রের ৭ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৪) এর একটি দল।র‌্যাব-৪ এর কোম্পানী কমান্ডার (এডিশনাল এসপি) মো: জমির উদ্দিন আহমেদ আজ শনিবার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান,  রাজধানীর মিরপুরের দারুস সালাম থানার মাজার রোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি তক্ষকসহ ৭জনকে গ্রেফতারা করা হয়।গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিরা হচেছ, আব্দুল্লাহ আল মামুন (৩৪),মোঃ সজিব (২৩), মোঃ সাইফুল ইসলাম (৫৮),মোঃ ইউসুফ (৪১), মোঃ শাহাবুদ্দিন (৩৯),মোঃ আনিসুর রহমান (৪৮) ও মোঃ জাকির হোসেন (৪২।র‌্যাব-৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ জিয়াউর রহমান চৌধুরী আজ শনিবার এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানান,শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে র‌্যাব-৪ এর একটি  দল র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট  মোঃ আনিসুর রহমান ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জমির উদ্দিন আহমেদ এর নেতৃত্বে এবং বন্যপ্রাণী অপরাধ নিয়ন্ত্রন বিভাগের পরিদর্শক নারগিস সুলতানা লিজা এর সহযোগিতায় রাজধানীর দারুস সালাম থানার মাজার রোডস্থ এলাকায় অভিযান চালিয়ে একটি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে। অভিযানকালে র‌্যাব সদস্যরা বিলুপ্তপ্রায় বন্যপ্রাণী তক্ষক সংরক্ষণ ও পাচার করার অপরাধে “বন্যপ্রাণী সংরক্ষন ও নিরাপত্তা আইন ২০১২ এর ৩৪(খ)” ধারায়  ধৃত ৭ জন পাচারকারী’কে বিনাশ্রম কারাদন্ড ও অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।র‌্যাব-৪ এর মিডিয়া অফিসার মোঃ জিয়াউর রহমান চৌধুরী আরও জানান, এদের মধ্যে ধৃত আব্দুল্লাহ আল মামুন (৩৪) জেলা- ময়মনসিংহ’কে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এছাড়া মোঃ সজিব (২৩) জেলা-ময়মনসিংহ, মোঃ সাইফুল ইসলাম (৫৮) জেলা- ময়মনসিংহ, মোঃ ইউসুফ (৪১) জেলা- বরিশাল, মোঃ শাহাবুদ্দিন (৩৯) জেলা- বাগেরহাট, মোঃ আনিসুর রহমান (৪৮) জেলা- পাবনা এবং মোঃ জাকির হোসেন (৪২) জেলা- ঢাকা, তাদের প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা করে সর্বমোট ৩ লাখ  টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।র‌্যাবের এ কর্মকর্তা জানান, ধৃত আসামীরা জরিমানাকৃত অর্থ প্রদানে ব্যর্থ হলে তাদের প্রত্যেককে ১ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার, কেরানীগঞ্জে প্রেরণ করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, ধৃত আসামীরা দীর্ঘদিন যাবৎ পরস্পর যোগসাজসে লোক চক্ষুর আড়ালে দেশের বিভিন্ন জেলা হতে তক্ষকসহ অন্যান্য বিলুপ্তপ্রায় বন্যপ্রাণী সংগ্রহ করে পাচারের উদ্দেশ্যে চড়াদামে বিক্রয় করে আসছিল। পরবর্তীতে উদ্ধারকৃত তক্ষক টি বন্যপ্রাণী অপরাধ নিয়ন্ত্রন বিভাগের কর্মকতাদের উপস্থিতিতে জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যান, মিরপুর-১ এ অবমুক্ত করা হয়।