সোমবার ১০ই মে, ২০২১ ইং ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

লালমনিরহাট ও পাটগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামীলীগের ২ বিদ্রোহী প্রার্থীকে দল থেকে বহিষ্কার…

আপডেটঃ ৯:৫২ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২১

এস এম আলতাফ হোসাইন সুমন, লালমনিরহাট-: লালমনিরহাট ও পাটগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে বিদ্রোহী হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার অভিযোগে দুই স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থীকে যুবলীগ ও আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

লালমনিরহাট জেলা  যুবলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম স্বপন ও পাটগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান আসাদ ক দলের শৃঙ্খলা ভংঙ্গের অপরাধে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। উভয়েই স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান পাটগ্রাম পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান আসাদের বহিষ্কারপত্রে স্বাক্ষর করেন। ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে পাটগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে কাজী আসাদুজ্জামান আসাদকে বহিষ্কার করা হলো।

এর আগে পাটগ্রাম উপজেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে গত ৩০ জানুয়ারি তাকে শোকজ করা হয়েছিল। ওই শোকজের কোনও জবাব দেননি কাজী আসাদ।

লালমনিরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন এমপি বলেন, ‘দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন দিয়েছে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ। সেখানে দলীয় নৌকা প্রতীকের বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কারণে পাটগ্রাম পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী আসাদুজ্জামান আসাদকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা বললে কাজী আসাদুজ্জামান আসাদ কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।

অন্যদিকে, লালমনিরহাট জেলা যুবলীগের সভাপতি মোড়ল হুমায়ুন কবীর ও সাধারণ সাখাওয়াত হোসেনের যৌথ স্বাক্ষরে দলের অর্থবিষয়ক সম্পাদক রেজাউল করিম স্বপকে একই অভিযোগে গত ৩০ জানুয়ারী শোকজের পর বহিষ্কার করেন।

লালমনিরহাট জেলা যুবলীগের সভাপতি মোড়ল হুমায়ুন কবীর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘কেন্দ্রীয় আওয়ামী যুবলীগের সিদ্ধান্তের অংশ হিসেবে আমরা জেলা যুবলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী রেজাউল করিম স্বপনকে অর্থবিষয়ক সম্পাদকসহ দল থেকে বহিষ্কার করেছি।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রেজাউল করিম স্বপনও কোনও মন্তব্য করতে রাজি হননি।