সোমবার ১০ই মে, ২০২১ ইং ২৭শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

টঙ্গীর বউবাজারের লাইন ম্যান না থাকার কারণ রাস্তার চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্য….

আপডেটঃ ৪:২৪ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টার-: টঙ্গীর মধুমিতা রেলগেট লাইনম্যান থাকলেও, বউবাজার লাইনম্যান না থাকার কারণ রেলের জায়গায়  চাঁদাবাজদের দৌরাত্ম্যে । গাজীপুর মহানগর টঙ্গীর অন্যতম ঘনবসতিপূর্ণ বাজার নামে পরিচিত বউবাজার। যেখানে প্রতিদিন ঢাকা, উত্তরা,সহ আশপাশের মানুষ আসে  বাজার করতে। কয়েক লক্ষ মানুষ নিত্য প্রয়োজনীয় বাজারের সয়লাব হয় এ খানে। রেল কর্তৃপক্ষ কর্তৃক উত্তরা কোট বাড়িতে গেটম্যান   লাইন ম্যান থাকলেও ঢাকার নিকট বর্তী টঙ্গীর এই বউবাজারের লাইন নেই। কারন কি জানতে চাইলে জানা যায়, পার্শ্ববর্তী মধুমিতা রেলগেট লাইন ম্যান এর কাছে ।

গত 15 বছর আগের সাবেক কাউন্সিলর 45 নং ওয়ার্ড ইসমাইল হোসেন বাবুর মাধ্যমে, টঙ্গী পৌরসভা কর্তৃক দুইজন লাইনম্যান নিয়োগ দেয়া হয় মধুমিতা রেলগেট এর জন্য । যা আজও পৌরসভা কর্তৃক বেতন বহাল তবিয়েত আছে। সূত্র মতে,গত একমাসে বউবাজারে 5 থেকে 7 জন পথচারী, ক্রেতা ও বিক্রেতা বাজার করতে এসে মৃত্যু হয়েছে।বিভিন্ন গণমাধ্যমে এসব খবরগুলো প্রকাশিত ও হয়েছে।বিভিন্ন ভুক্তভোগীরা জানান, বউবাজারে শুধুমাত্র লাইনম্যান না থাকার কারণে এই ঘটনাগুলো পরপর ঘটে যাচ্ছে।তারপরও রেলের কিছু অসাধু কর্মকর্তা ও বর্তমানে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের লাইসেন্স ব্যবহারকারী কতিপয় লোক, আব্বাস  শামসুদ্দিন, মোশারফ, জুলহাস খান, , রাসেদুল, গাজী সালাহউদ্দিন ,কবীর বেপারী ,শহীদ গাজী, সুমন সরকার, ফেন্সি আরফান, আরিফ, শাহাবুদ্দিন ,হাবিবুর ,মোমেন সরকার । সহ আরো অনেকেই সরকারি এই রেল লাইনের জায়গা নিজের সম্পত্তি মনে করে চাঁদাবাজি চালিয়ে যাচ্ছে ।

যে যার মত ক্ষমতার অপব্যবহার করে অসহায় গরীব দুঃখী মানুষদেরকে জিম্মি করে রেলের জায়গা বিট প্রতি  420 টাকা থেকে শুরু করে 50 টাকা পর্যন্ত নিচ্ছে সমিতির বই এর মাধ্যমে নানা কায়দায়  কোটি কোটি টাকার বনে। টঙ্গী রেলওয়ে জি আরপি পুলিশ  রেলের চাঁদাবাজদের বিষয়ে ,নূর মোহাম্মদের কাছে  জানতে চাইলে , তিনি রেলের জায়গায় কে বা কারা চাঁদার  টাকা  খায় এ বিষয়ে তিনি কোনো তথ্য দিতে পারেন নি।  সুনির্দিষ্ট তথ্য পেলে উচ্ছেদ অভিযানের  ব্যবস্থা করবেন বলে জানান।