বুধবার ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বড় ধরনের দুর্ঘটনার আশঙ্কা -টঙ্গীতে ডাস্টবিন থাকতেও মহাসড়কে আবর্জনার স্তূপ…..

আপডেটঃ ৬:৩৯ অপরাহ্ণ | জুন ১২, ২০২১

গাজীপুর সংবাদদাতা: গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলমের অঙ্গীকার, গ্রীন ও ক্লিন সিটি হোক সবার। অপরদিকে  ডাস্টবিন অপসারণ চাই এই স্লোগানে বিগত দিনে বহুবার মানববন্ধন করেছে ৪৭ নং ওয়ার্ডের স্থানীয় ও সাধারণ এলাকাবাসী। ১১ই জুন শুক্রবার সকাল ১১ঘটিকার সময় সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়,  ঢাকা-কালীগঞ্জ-সিলেট মহাসড়কের টঙ্গীর মরকুন মোল্লার গ্যারেজ এরএকটু অদূরে….. শিলমুন এলাকায় ডাস্টবিন এর জন্য নির্ধারিত জায়গার ময়লা ফেলার পরিবর্তে মহাসড়কের প্রায় ৪ফিট উপর পর্যন্ত উচু করে ময়লা ফেলছে পরিছন্নতার কাজে নিয়োজিত ভ্যান চালকরা। এতে পরিবেশ যেমন ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে তেমনি ঝুঁকিপূর্ণ হচ্ছে মাহাসড়ক। মহাসড়কে যাতায়েত কারী বাস, ট্রাক, কভারভ্যান, সিএনজি, মোটরসাইকেল, অটো রিক্সাসহ বিভিন্ন দূর পাল্লার যানবাহন প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। ইতি পূর্বে এই স্থানে সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনাও ঘটেছে। ডাস্টবিনের পাশে বসবাসকারী স্থানীয় বাসিন্দারা ও পথচারিরা বলেন, গাজীপুর সিটি করপোরেশন এলাকায় নির্ধারিত ডাম্পিংয়ের জায়গায় ময়লা না ফেলে সড়কের উপর ময়লা ফেলার কারণে ৪৭ নং ওয়ার্ড আমরা যারা বসবাস করি আমাদের পাশাপাশি পথচারীদেরও বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিচ্ছে। আমাদের রাস্তা দিয়ে চলাচলে ব্যাঘাত ঘটছে।  আমাদের স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র, ছাত্রী ও আশেপাশের অসংখ্য ফ্যাক্টরির শ্রমিকরা ময়লার দুর্গন্ধের মহাসড়কের উপর দিয়ে চলাচল করতে পারছেনা। সড়কের পাশে ভ্যানগাড়ি দিয়ে ময়লা-আবর্জনা ফেলার কারণে রাতে যানবাহন চলাচলের সময় পথচারীদের মৃত্যুর মতো ঘটনা ঘটছে। কিছু কিছু সময় ময়লা আবর্জনা থেকে হঠাৎ করে আগুন লেগে এলাকাবাসীর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এবিষয়ে অসংখ্য বার অভিযোগ করলেও দৃষ্টি দিচ্ছে না স্থানীয় জনপ্রতিনিধি। এলাকাবাসী আরো বলেন, শিলমুন এলাকার মধ্য খানে এমন ময়লার ডাস্টবিন যেন না থাকে,সেজন্য মেয়র মহোদয়ের কাছে জোরালো দাবি জানাচ্ছি। এছাড়া সামান্য বৃষ্টিতে শিলমুন এলাকার ব্যাপারী পাড়া রোড, মাষ্টার পাড়া ও মোল্লার গ্যারেজ এলাকায় জলাবদ্ধতায় হাটু থেকে কোমড় পরিমান পানি জমাট বাধে। পানির সুষ্ঠ নিষ্কাসনের ব্যাবস্থা না থাকায় দীর্ঘ সময় এই পানি জমাট থাকে। এতে প্রায় দেড় হাজারের অধীক পরিবারের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়। পানি নামার একমাত্র লাইনটি মহাসড়কের নিচে ময়লার ডাস্টবিনের পাশ দিয়ে অতিক্রম করেছে। কোন রকম পানি নিষ্কাসনের মুল  ড্রেনের মুখে ময়লা জমাট বাধার মুল কারণ ময়লা ডাস্টবিনে না ফেলে বাইরে ফেলছে পরিছন্নতার কাজে নিয়োজিত শ্রমিকরা। এলাকাবাসী গাজীপুর সিটি মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের কাছে ডাস্টবিন অপসারণ ও সঠিক ড্রেনেজ ব্যাবস্থার মাধ্যমে উক্ত শিলমুন বাসীকে স্বাভাবিক ভাবে বেচে থাকার সুযোগ করে দেওয়ার দাবি জানান। এ বিষয়ে স্থানীয় কাউন্সিলর সাদেক আলী বলেন, ময়লা সরানোর চেষ্টা চলছে আশা করি অতি দ্রুত ময়লা পরিষ্কার হয়ে যাবে। ময়লা সরিয়ে নেওয়ার সঠিক জায়গা না থাকায় এখানে জমাট হয়ে গেছে। ময়লার জন্য ব্যাবহার করা ভ্যান ভিতর থেকে ময়লা বের করতে পারছেনা।