বুধবার ২৮শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ ১৩ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

মিঠাপুকুরে সুড়ঙ্গ খুড়ে ব্যাংক ডাকাতির চেষ্টা !

আপডেটঃ ৪:১৬ অপরাহ্ণ | জুন ১৫, ২০২১

বিশেষ প্রতিনিধি : –রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার জায়গীরহাট সোনালী ব্যাংকের শাখার পাশের একটি মাদ্রাসার কক্ষ থেকে ব্যাংক বরাবর সুরঙ্গ খোঁড়া হয়েছে। পুলিশের ধারণা, ব্যাংকে ডাকাতির জন্য সুরঙ্গটি খোঁড়া হয়েছিল। তবে, আগেভাগেই সেটি স্থানীয়দের নজরে আসায় পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে পারেননি চক্রান্তকারীরা।
সুরঙ্গ আবিষ্কারের পর ওই ব্যাংকের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।
সোমবার রাত আটটার দিকে ঘটনাস্থলে যান মিঠাপুকুর থানা পুলিশ। তারা সরেজমিন তদন্ত করে এসেছেন।
মিঠাপুকুর থানার ওসি ( তদন্ত) জাকির হোসেন  বলেন, ওই ব্যাংকের অদূরে ফখরুল উলুম সিনিয়র মাদ্রাসা আছে। সেই মাদ্রাসার একটি কক্ষে কে বাবা কারা একটি বড় গর্ত খুড়ে, যা কিনা সুরঙ্গ আকৃতির।
তিনি বলেন, যেখানে সুরঙ্গটি খোঁড়া হয়েছে তার পাশে বড় পাকা রাস্তা আছে। সেই রাস্তার পরই একটি সেপটিক ট্যাংক, তারপরে ব্যাংকটি। করোনার কারণে মাদ্রাসাটি বন্ধ রয়েছে। স্থানীয় ছেলেরা ওই মাদ্রাসার মাঠে ফুটবল খেলছিল। এক পর্যায়ে ফুটবলটি সেখানে যায়। ওই ফুটবল আনতে যায় এক কিশোর। সে সুরঙ্গটি দেখতে পায়। পরে সে তার বাবাকে বিষয়টি জানায়।
ওসি বলেন, ওই কিশোরের বাবা সন্ধ্যায় বাজারে এসে ঘটনাটি বলেন। এরপর স্থানীয়রা সেটি দেখতে যায়। আমরা খবর পেয়ে সেখানে যাই এবং ব্যাংকের ম্যানেজার সামিউল ইসলামও ঘটনাস্থলে আসেন। আমরা সুরঙ্গটি দেখি। এটা খুঁড়ে ব্যাংক পর্যন্ত যেতে পারলে হয়তো একটা বড় ধরনের ডাকাতির ঘটনা ঘটতো।
ব্যাংকটির ম্যানেজার সামিউল ইসলামের বরাত দিয়ে ওসি(তদন্ত) জাকির বলেন, সুরঙ্গ আবিষ্কারের পর ব্যাংক কর্তৃপক্ষ সেখানে নিরাপত্তা জোরদার করেছে।
মাদ্রাসাটির সভাপতি এনামুল হক নিউজবাংলাকে বলেন, আমাদের মাদ্রাসা দেড় বছর ধরে বন্ধ। মূল গেটও বন্ধ থাকে। কিন্তু মাদ্রাসার পূর্বপাশে একটি রুম আছে সেখানে কাঠসহ কিছু জিনিস আছে। ওই রুমেই এই সুরঙ্গ খোঁড়া হয়েছে। আমরা ধারণা করছি যারা এটি করেছে তারা হয়তো ব্যাংক ডাকাতির উদ্দেশ্যে করেছে।