বৃহস্পতিবার ১লা অক্টোবর, ২০২০ ইং ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

সাগরে মৃত্যুফাঁদ: রিপ কারেন্ট বা প্রতি খরস্রোত (ভিডিও)

আপডেটঃ ৫:৪২ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৬, ২০১৪

আহসানুল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকজন ছাত্রের মৃত্যুর পর “রিপ কারেন্ট” (উল্টা/প্রতি খরস্রোত) নিয়ে অনেক কথা হচ্ছে। এটা কিন্তু শুধু সেন্ট মার্টিন দ্বীপের একার কোন সমস্যা নয়। সারা বিশ্বেই এই সমস্যা দেখা যায়।

একটি সতর্কতামুলক খবর ছড়ানো হচ্ছে যে, দ্বীপের কোণায় রিপ কারেন্ট থাকে। কিন্তু এমন কোন কথা নেই। ফ্ল্যাট বিচেও এটি হতে পারে। যেকোনো জায়গায় গভীর লম্বা (সৈকতের সাথে সমকোণে) খাঁজ থাকলে আর পাশে অগভীর সৈকত থাকলে, রিপ কারেন্ট হতে পারে।

পাইপের মুখে চেপে ধরলে যেমন পানির জোর বেড়ে যায়। পানিগুলো উল্টা দিকে খুব চিকন রাস্তা দিয়ে আসার জন্য অনেক দ্রুত বেগে সমুদ্রের দিকে পানির স্রোত বইতে থাকে। আর তাই, ওখানে পড়ে গেলে আপনাকে সে তার গলা পর্যন্ত দ্রুত টেনে নিয়ে যাবে।

আবার রিপ কারেন্ট যে একি জায়গায় স্থির থাকবে, এটাও ঠিক না। বালুময় সৈকতে, যেকোনো স্থানের বালু সরে গিয়ে লম্বা খাঁজ তৈরি হতে পারে। আর এই খাঁজের পানির স্রোত উল্টা দিকে থাকে, আর পানিও নীলচে-শান্ত দেখায়। যা আপাত দৃষ্টিতে সাঁতারের জন্য খুবই লোভনীয় মনে হয়।

অতএব সাগরে গিয়ে পরিষ্কার স্রোতহীন কোন জায়গা দেখলে খুব সাবধান থাকতে হবে। তারচেয়ে সাদা পানির স্রোত অনেক নিরাপদ। এই ভিডিও দেখেলে কিছুটা ক্লিয়ার হবেন পাঠকরা। একটা ভালো পরামর্শ হল, আতঙ্কিত না হয়ে, পাশে কোথায় সাদা পানির ঢেউ দেখা যাচ্ছে, সেদিকে সাঁতরিয়ে যান। সামনের দিকে না। শুধু শুধু শক্তি অপচয় হবে, কারন রিপ কারেন্টের গতি, যে কোন অলিম্পিক সাতারু থেকেও বেশি।

সাদা পানির দিকে গিয়ে গা ভাসিয়ে রাখলে আপনি এমনিতেই নিজে নিজে পাড়ে চলে আসবেন। রিপ কারেন্টের জায়গা খুব চিকন হয়। তাই বিপরীতে সাতার কাটা খুবই বোকামি।