সোমবার ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং ৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

সংবাদকর্মীদের একাংশের খালেদার ইফতার কর্মসূচি বর্জন

আপডেটঃ ৪:২০ পূর্বাহ্ণ | জুলাই ০৭, ২০১৪

গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সম্মানে ইফতার আয়োজন সম্পন্ন করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। আর এ কর্মসূচি বর্জন করেছে অনলাইন সংবাদকর্মীদের একাংশ।

গুলশানের ওয়েস্টিন হোটেলে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রথম সারির বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের সম্পাদকরা উপস্থিত হননি।

জানা গেছে, প্রেস উইংয়ের অবহেলার কারণে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দাওয়াত কার্ড পৌঁছেনি।

জানা গেছে, বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম এবং ঢাকা টাইমস টোয়েন্টিফোর ডটকমের সম্পাদক ছাড়া অন্য অনলাইন পত্রিকার সম্পাদকের কাছে বিএনপি চেয়ারপারসনের আমন্ত্রণপত্র পৌঁছেনি।

বিএনপির চেয়ারপারসন বা দলের কর্মসূচি নিয়মিতভাবে কাভার করে বেশ কয়েকটি অনলাইন পত্রিকা। অথচ দাওয়াত পেয়েছে মাত্র ৩জন সম্পাদক!

আজকের ইফতার পার্টি কাভার করতে হোটেল ওয়েস্টিনে যারা গিয়েছিলেন তাদের অনেকেই বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয়েছে। গণমাধ্যমের সম্পাদকদের সঙ্গে খালেদা জিয়ার ইফতার কর্মসূচি চললেও সংবাদকর্মীদের প্রবেশে বাধা দেয়া হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা মো. জসীম সাংবাদিকদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছেন। দৈনিক যুগান্তরের একজন ফটো সাংবাদিককে হয়রানি করা হয়েছে। এছাড়াও যমুনা টেলিভিশন, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশন, একাত্তর টেলিভিশনসহ বেশ কয়েকটি টেলিভিশনের কয়েকজন সাংবাদিকদের ফিরিয়ে দিয়েছেন। একটি প্রতিষ্ঠান থেকে দুইজনের বেশি সংবাদকর্মী বিএনপি চেয়ারপারসনের অনুষ্ঠান কাভার করতে পারবে না বলে জানান মো. জসীম।

এ ব্যাপারে প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল এর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, নিয়মিত রিপোর্টাররা প্রবেশের সুযোগ পাবে। তবে তিনি উপস্থিত না থাকায় অনুষ্ঠানস্থলে অনেকের প্রবেশের সুযোগ হয়নি।

আজকের ইফতার পার্টিতে বাংলামেইল, বাংলা নিউজ, আইনএনবি, নেকস্ট নিউজ, জি নিউজ, ব্রেকিং নিউজ, ঢাকা টাইমস এর কোনো প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন না।

বেসরকারি টেলিভিশনের চ্যানেল নাইনের স্টাফ রিপোর্টার কায়সার রাহমানি। বিএনপি বিটের একজন নিয়মিত রিপোর্টার তিনি। ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি বলেন, সাংবাদিকদের নিয়ে তাদের নিজস্ব কোনো নীতি থাকতেই পারে। বিষয়টি আগে থেকে জানানো হলে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হতো না।

জাস্ট নিউজ বিডি ডটমের বার্তা সম্পাদক মহিউদ্দিন খান মোহন ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, জাস্ট নিউজ বিএনপির সংবাদ গুরুত্বসহকারে প্রকাশ করে। কিন্তু আমাদের সম্পাদককে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি।

উল্লেখ্য, বেগম খালেদা জিয়া যখন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন মোহন সে সে সময়ে তার সহকারী প্রেস সচিবের দায়িত্বে ছিলেন।