রবিবার ২৬শে মে, ২০১৯ ইং ১২ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

আমাদের নাটকের বড় সমস্যা হচ্ছে বাজেট- স্বাগতা

আপডেটঃ ২:০২ পূর্বাহ্ণ | মার্চ ০২, ২০১৯

বিনোদন: বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে স্বাগতা অভিনীত একাধিক ধারাবাহিক নাটক। উল্লেখযোগ্য ধারাবাহিকগুলো হলো এনটিভিতে ‘কাগজের ফুল’, আরটিভিতে ‘সেন্টিমেন্টাল সেলিম’, বিটিভিতে ‘লকেট’ ও দুরন্ত টিভিতে ‘ব তে বন্ধুত্ব’। টিভি নাটক নিয়েই এই অভিনেত্রীর এখন ব্যস্ততা। প্রচার চলতি ধারাবাহিকগুলো থেকে কেমন সাড়া পাচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি সব সময় চেষ্টা করি গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করতে। আমাকে গতানুগতিক নায়িকা হতে হবে এমনটা ভাবি না। আমি যে ধারাবাহিকগুলোতে অভিনয় করছি সবক’টাতে আমার চরিত্রের গুরুত্ব আছে।

ধারাবাহিকগুলোর জন্য দর্শকদের সাড়াও পাচ্ছি। দর্শকদের কাছ থেকে কিভাবে জানতে পারেন কোন নাটকটি তারা কেমন ভাবে নিচ্ছেন? এই প্রশ্নের উত্তরে স্বাগতা বলেন, এখন আগের চেয়ে সব কিছু সহজ হয়ে গেছে।একটি নাটক প্রচারের পরেই অনেকে ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপে কিংবা ফোনে তাদের ভালো লাগার কথা জানাচ্ছেন। এ ছাড়া এখন নাটক ইউটিউবেও থাকছে। দর্শকরা সেখানে কমেন্টস বক্সে তাদের মন্তব্য করছে। আমাদের দেশীয় নাটকের ভবিষ্যৎ কি? দর্শকরা ভারতীয় সিরিয়ালে আকৃষ্ট বলে যে অভিযোগ রয়েছে সেটিকে কিভাবে দেখছেন? এই প্রসঙ্গে স্বাগতা বলেন, আমাদের এখন অনেক নাটক নির্মাণ হচ্ছে। আমি মনে করি, আমাদের ভালো নাটক নির্মাণ হচ্ছে। তবে এখন নাটকের বড় সমস্যা বাজেট।

নাটকে বাজেট পর্যাপ্ত নেই। টিভি চ্যানেলগুলো যদি একটু আন্তরিক হয় তাহলে এটি পরিবর্তন সম্ভব। এ ছাড়া যারা নাটক নির্মাণ করছেন তাদের শিল্পী নির্বাচনে মনোযোগ দিতে হবে। গল্পনুযায়ী শিল্পী নির্বাচন করলে সেই নাটকটি ভালোভাবে নির্মাণ করা সম্ভব। ২০০৭ সালে এই অভিনেত্রীর ‘শত্রæ শত্রæ খেলা’ ছবিটি দর্শকদের মধ্যে দারুণ সাড়া ফেলে। পরে আরো কয়েকটি ছবিতে তাকে দেখা গেছে। কিন্তু এই সময়ে চলচ্চিত্রে নেই তিনি।

তবে কি চলচ্চিত্র থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন স্বাগতা? তিনি বলেন, চলচ্চিত্র থেকে সরে দাঁড়াইনি। এখন কয়টা চলচ্চিত্র আমাদের নির্মাণ হচ্ছে! কিছু চলচ্চিত্র আবার ঘোষণা দিয়েই বন্ধ হচ্ছে। এ ছাড়া সেই সময়ের অনেক অভিনেত্রীই এখন চলচ্চিত্রে নেই। সবাই যে কারণে নেই আমারও সেই কারণ। অর্থাৎ এখন আমাদের চলচ্চিত্রের অবস্থা ভালো নেই। মাঝে মধ্যে দু-একটি ব্যতিক্রমী চলচ্চিত্র নির্মাণ হচ্ছে এটি সত্যি। চলচ্চিত্র নির্মাণের সংখ্যা বাড়লে সিনিয়র অভিনেত্রীরা অভিনয়ে ফিরবেন বলে আমি মনে করি। আমিও চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে চাই। যদি মনের মতো কোনো গল্প-চরিত্র পাই তাহলে আবারো নতুন চলচ্চিত্রে দর্শকরা আমাকে পাবে। অভিনয়ের বাইরে এই অভিনেত্রী নিয়মিত উপস্থাপনাও করছেন।

বাংলাভিশনে চলচ্চিত্রবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘সোনালি দিনের রুপালি গল্প’ অনুষ্ঠানটি নিয়মিত উপস্থাপনা করছেন। এটি প্রতি শনিবার সন্ধ্যায় প্রচার হচ্ছে। অভিনয়ের পাশাপাশি ভালোলাগা থেকেই উপস্থাপনা করেন বলে জানান তিনি। এদিকে স্বাগতা তার বাবার ‘আনন্দম সংগীতাঙ্গন’ প্রতিষ্ঠানে অভিনয়ের ক্লাস নেন। এই স্কুলটি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বাবার ‘আনন্দম সংগীতাঙ্গন’ গানের স্কুলটি আমরা চালু রেখেছি। সেখানে বাচ্চারা গান ও অভিনয় শিখছে।

গানের ক্লাস নেন আমার ছোটবোন সভ্যতা। আমি অভিনয়ের ক্লাস নিচ্ছি। তাদের সঙ্গে সময় কাটাতে আমার ভীষণ ভালো লাগে। আলাপনে স্বাগতার কাছে সর্বশেষ জানতে চাওয়া হয় কেমন বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেন? তার ভাষ্য, কিছু দিন আগে চকবাজারের অগ্নিকাÐ আমাদের মর্মাহত করেছে। এভাবে একেক সময় একেকটি দুর্ঘটনা আমাদের ঘটছে। আমি সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা চাই। সুন্দরভাবে সব মানুষ বাঁচতে পারবে এই অধিকার আমাদের নিশ্চিত করা প্রয়োজন।