সোমবার ১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং ১লা আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Ad

সর্বশেষঃ

বদরগঞ্জে সড়কে পানি জমে জন দুর্ভোগ

আপডেটঃ ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ | এপ্রিল ১৬, ২০১৯

ময়দুল ইসলাম -বদরগঞ্জ, রংপুর-রংপুরের বদরগঞ্জে বর্ষা আসার আগেই পৌর শহরের বিভিন্ন সড়কে হাটু পানি জমে জন দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। এই অ লের সাধারণ মানুষ প্রয়োজনের তাগিদে সড়কের কাদাপানি মাড়িয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করলেও জনদুর্ভোগের বাস্তবচিত্র যথাযথ কর্তৃপক্ষের নজরে পড়েনা। এ কারণে সড়কগুলোর পুনঃনির্মাণ কাজ হয় না।

বদরগঞ্জ দ্বিতীয় শ্রেণির একটি পৌরসভা। এই পৌর শহরের পুর্ব দক্ষিণে চলে গেছে বদরগঞ্জ-নাগেরহাট সড়ক। একটু বৃষ্টি হলেই এই সড়কের ডিগ্রী কলেজ ঘুমটি এলাকায় জমে থাকে হাটু পর্যন্ত নোংরা পানি। বিকল্প সড়ক না থাকায় জনসাধারণ সেই কাদা পানি মাড়িয়েই দিনের পর দিন অনায়াসে চলাচল করে থাকে। স্থানীয় কীটনাশক ব্যবসায়ী কামরুল হাসান অভিযোগ করে বলেন, গত বছর সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের কাউন্সিলরকে এই ব্যাপারে অবগত করার পর তিনি পানি নিষ্কাশনের জন্য ব্যবস্থা করেছিলেন। পরে কেবাকারা পানি চলাচলের পথ বন্ধ করে দেওয়ায় আবারো এই সড়কটি নদীতে পরিণত হয়েছে। যার ফলে জন দুর্ভোগ নিরসন হচ্ছেনা।

এদিকে একটু বৃষ্টিতে পৌর শহরের মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সরকারি বালিকা বিদ্যালয় এবং বদরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে কাদাপানি জমে চলাচলে অনুপযোগী হয়েছে। শিক্ষার্থীরা কাদাপানি মাড়িয়ে জামা কাপড় নোংরা করে বিদ্যালয়ে যাতায়াত করে থাকে। সেখানকার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শেণির শিক্ষার্থী সিনথিয়া সুপ্তি পত্রিকা জানায়, একটু বৃষ্টি হলেই এখানে হাটুপানি জমে থাকে। একারণে শিক্ষার্থীদের চলাচলের সমস্যা হয়। সড়কের কাদাপানিতে নামার ভয়ে অনেকেই স্কুলে আসতে অনিহা প্রকাশ করে।

এছাড়াও হাসপাতাল রোডের শাহাপুর ব্রীজের পুর্ব দিকে কিছুটা সড়ক দেবে গিয়ে সারা বছর সেখানে কাদাপানি জমে থাকে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা জানান, এই সড়কের বিভিন্ন স্থানে কাদাপানি জমে থাকায় চলাচলে সমস্যার সৃষ্টি করে। আমরা পৌরসভা কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা বিষয়টি দেখার জন্য আশ্বাস দিলেও আজ পর্যন্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি।

এ বিষয়ে বদরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র উত্তম কুমার সাহা বলেন, বৃষ্টি হলে সড়কে কাদাপানি জমতে পারে এতে বিচলিত হওয়ার কোন কারণ নেই। ইতিমধ্যে দু’একটি স্থানে মেরামত কাজ শুরু হয়েছে। ধিরেধিরে সবকটি স্থানে কাজ করা হবে।